Diamond World Ltd
Diamond world ltd
diamond world ltd

ত্বকের উজ্জ্বলতা হারানোর কারণ কী?

লিখেছেন ডাঃ তাওহীদা রহমান ইরিন

পাঠকদের উদ্দেশে প্রথমে জানাতে চাই, উজ্জ্বল ত্বক বলতে আমরা কী বুঝি। উজ্জ্বল ত্বক নিয়ে কিন্তু অনেক রকম দ্বিধা থাকে। উজ্জ্বল ত্বক বলতে আমরা সেই ত্বককে বলব, যেই ত্বক সুস্থ-স্বাভাবিক ও প্রাণবন্ত, যে ত্বকে পানির পরিমাণ ঠিকঠাক থাকে, সঠিক আর্দ্রতা বজায় থাকে। কারণ, আর্দ্রতা হারালে ত্বক হয়ে যাবে মলিন। আর ত্বকের যে প্রতিটি কোষ, সেগুলো যেন থাকে সুস্থ। কারণ, সুস্থ কোষই নির্দিষ্ট পরিমাণ মেলানিন তৈরি করবে। কোষগুলো যদি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যায়, তখন সে হাইপার অ্যাকটিভ হয়ে বেশি বেশি মেলানিন তৈরি করবে, যা উজ্জ্বলতার পথে বাধা দেবে।

এর পর ত্বকের একটি গভীরে থাকে তৈল গ্রন্থি। এটি সেবাম তৈরি করে, যা প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার ফ্যাক্টর হিসেবে কাজ করে। কোনো কারণে গ্রন্থিগুলো যদি হাইপার অ্যাকটিভ হয়ে যায়, বেশি বেশি সেবাম তৈরি করে, ত্বক তখন দেখায় চকচকে। অক্সিডাইসড হয়ে যায়। আর সেবাম প্রয়োজনের তুলনায় যদি কম তৈরি করে, সে ক্ষেত্রে ত্বক হয়ে যায় শুষ্ক। এর মানে সুস্থ ত্বক হলো, ভারসাম্যপূর্ণ ত্বক। আসলে ফর্সা ত্বক যদি প্রাণহীন থাকে, সে ক্ষেত্রে কিন্তু আসল সৌন্দর্য থাকছে না।

উজ্জ্বলতা হারানোর কারণের ক্ষেত্রে প্রথমেই আসছে বয়স। বয়স বাড়তে থাকলে ইলাস্টিন ও কোলাজেন কিন্তু কমতে থাকে। এতে ত্বক দৃঢ়তা ও স্থিতিস্থাপকতা হারায়। এরপর কোষগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হতে থাকে। তখন বেশি মেলানিন তৈরি করে। এতগুলো বিষয় কিন্তু বয়সের সঙ্গে হচ্ছে। এটা স্বাভাবিক। এর সঙ্গে অনিদ্রা, অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপন, অপুষ্টিকর খাবার, এগুলো যদি যোগ করি, তাহলে বয়স বাড়ার গতিটাও বাড়বে, সঙ্গে ত্বক কিন্তু হয়ে উঠবে আরো অনুজ্জ্বল।

# ত্বকের যত্নে ঠিকভাবে না নিলে ত্বকে সৃষ্টি হয় নানা ধরনের সমস্যা।এই যত্ন নিতে হবে ত্বকের ধরন আর আবহাওয়া বুঝে। নিজের ত্বককে চিনতে শিখুন।

# বাইরে বের হলে যে কোনো ঋতুতেই ত্বকের ওপরে ধুলোর আস্তরণ পড়ে। ত্বক পরিষ্কার করার জন্য ভালো কোনো মাইলড ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

# মুখ ধোয়ার পরে অবশ্যই ত্বককে ময়শ্চারাইজ করে নেয়া জরুরি। ময়েশ্চারাইজার পুরো মুখে ভালো করে ম্যাসাজ করতে হবে।

# উজ্জ্বলওসুন্দর ত্বকের জন্য বাইরে বের হওয়ার আগে সানস্ক্রিন ক্রিম ব্যবহার করাটা অপরিহার্য।

# শরীরের সুস্থতার পাশাপাশি ত্বকের সুস্থতাও কিন্তু নির্ভর করে ব্যায়ামের ওপরে। ব্যায়াম মানসিক চাপ দূরে রাখতে সাহায্য করে।নিয়মিত ব্যায়াম আমাদের শরীরে রক্ত সঞ্চালন বাড়াতে ও অক্সিজেন চলাচলে সয়ায়তা করে।

# ঘুম আমাদের ভালো স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত জরুরি। প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের জন্য প্রতিদিন ছয় ঘণ্টা ঘুম দরকার। ঘুমের কারণে দেহের হরমোন মাত্রা স্বাভাবিক থাকে। দুশ্চিন্তা ও বিষন্নতা কমিয়ে আনার জন্য উপযুক্ত ঘুম অত্যাবশ্যক। শরীরকে সতেজ ও রোগ মুক্ত রাখতে প্রয়োজন পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুম ।

# এছাড়াও দিনে ২-৩ লিটার পানি পান করতেই হবে।সতেজ ত্বকের জন্য পানির বিকল্প নেই।নিয়ম করে প্রতিদিন ৮ গ্লাস পানি পান করুন।

# সুন্দর ত্বকের জন্য যে সব খাবার প্রয়োজনীয় যেমন গাজর,ডিম,টমেটো, কমলা, গ্রিন টি, নারিকেল তেল , শাক, শশা ,মৌসুমী ফল (পেয়ারা, আনারস, পেঁপে) বাদাম, কুমড়ার বীজ , মাছ, টক দই, জিরা, আদা, হলুদ। ত্বকের জন্য উপকারী খাবারগুলো নিয়মিত খাবেন । তাই নিয়মিত খেলে ত্বক থাকবে সজীব ও প্রাণবন্ত।

স্বাস্থ্য কথা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত